আজ বৃহস্পতিবার,১০ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,২৪শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,বিকাল ৫:৫৯

ব্রেকিং নিউজ

দিনাজপুরে সারা বিশ্বের উৎপাদিত সব কৃষি পণ্য ফলানো সম্ভব : কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক

News

মাহবুবুল হক খান, দিনাজপুর প্রতিনিধি॥ কৃষিমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. আব্দুর রাজ্জাক এমপি বলেছেন, বাংলাদেশের দ্রুত অর্থনৈতিক উন্নয়ন অগ্রযাত্রায় এক গুরুত্বপুর্ণ অধ্যায়ের নাম কৃষি। সারাবিশ্বে উৎপাদিত সব কৃষিপণ্য দিনাজপুরের মাটিতে ফলানো সম্ভব। এ এলাকার মাটি খুবই উর্বর। ফলে উৎপাদনশীলতা, আয় বৃদ্ধি এবং গ্রামীণ এলাকায় কর্মস্থান সৃষ্টির মাধ্যমে আমাদের বিশাল জনগোষ্ঠীর সমৃদ্ধির জন্য কৃষির গুরুত্বপর্ণ ভুমিকা রয়েছে।

সোমবার (১৫ মার্চ) দুপুরে দিনাজপুর নশিপুরস্থ বাংলাদেশ গম ও ভুট্টা গবেষনা ইনস্টিটিউট প্রাঙ্গণে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএডিসি) ভিত্তি পাট বীজ খামার ও বাংলাদেশ গম ও ভুট্টা গবেষনা ইনস্টিটিউট-এর সকল কার্যক্রম পরিদর্শন শেষে মুজিববর্ষ উপলক্ষে কৃষি প্রযুক্তি প্রদর্শন মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি  ড. আব্দুর রাজ্জাক এমপি এসব কথা বলেন।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অনুধাবন করেছিলেন কৃষির উন্নতিতে নিহীত রয়েছে কৃষকের অর্থনৈতিক মুক্তি। বর্তমান কৃষিতে দেশের যে অন্যান্য সাফল্য তা বঙ্গবন্ধুর দুরদর্শিতা ও পরিকল্পনার ধারাবাহিকতা। সাম্প্রতিক বছরগুলিতে হাইব্রিড ভুট্টা ও শাকসবজি উৎপাদন কয়েক গুন বৃদ্ধি পেয়েছে। ফসলের নিবিড়তা গত ৫ বছরে শতকরা ১৯২ হতে ২১৬ ভাগে উন্নীত হয়েছে। বর্তমানে কৃষিতে বাংলাদেশের অবস্থান বিশ্বে পাট উৎপাদনে সপ্তম, পাট ও কাঠাল উৎপাদনে দ্বিতীয়, ধান উৎপাদনে তৃতীয়, সবজি উৎপাদনে তৃতীয়, আম উৎপাদনে সপ্তম, আলু উৎপাদনে সপ্তম ও পেয়ারা উৎপাদনে অষ্টম। সারাবিশ্বের কাছে বাংলাদেশ এখন কৃষিতে রোল মডেল।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লক্ষ্য পরিবেশ সম্মতভাবে পুষ্টিসমৃদ্ধ নিরাপদ খাদ্য উৎপাদনের মাধ্যমে পুষ্টি নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ, উচ্চ মূল্যের ফসল রপ্তানীমুখীকরণ, খাদ্য সংরক্ষণ ও প্রক্রিয়াকরণ ব্যবস্থাপনা জোরদারকরণ।

কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশ দিয়েছেন এক ইঞ্চি জমিও যেন অনাবাদি না থাকে। আমাদের কৃষি উৎপাদন আরও বাড়াতে হবে। প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও শ্রমিক সংকট মোকাবেলায় কৃষি যান্ত্রিকীকরণের বিকল্প নেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে রুপকল্প ২০২১ এর ধারাবাহিকতায় টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা ২০৩০ অর্জন, ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণের প্রত্যয়ে কৃষি সেক্টরে অর্জনের এই ধারা অব্যাহত রাখার জন্য জোর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাওয়ার আহবান জানান। সকলের প্রচেষ্টায় আমরা উন্নত দেশের অভিযাত্রায় বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত সুখী-সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গড়ে তুলতে সক্ষব হবো।

অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশ ও দেশের মানুষের উন্নয়ন ও অগ্রগতিকে ত্বরান্বিত করেছেন। এতে কৃষি ও কৃষকের উন্নয়ন হয়েছে। কৃষি ক্ষেত্রে দিনাজপুরের ব্যাপক উন্নয়ন করা হয়েছে। তিনি বলেন, দেশে ভুট্টা উৎপাদনে দিনাজপুর প্রথম স্থান অধিকার করেছে।

বাংলাদেশ গম ও ভুট্টা গবেষনা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. মোঃ এছরাইল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন দিনাজপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল, কৃষিমন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মোঃ মেসবাহুল ইসলাম, বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশনের চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান অপু, বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়নের চেয়ারম্যান ড. অমিতাব সরকার, কৃষি সম্প্রসারণ অধিপ্তরের মহাপরিচালক মোঃ আসাদুল্লাহ, দিনাজপুর জেলা প্রশাসক খালেদ মোহাম্মদ জাকী, জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন বিপিএম, পিপিএম (বার), দিনাজপুর জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইমাম চৌধুরী, ধান গবেষনা ইনস্টিটিউটের সহকারী পরিচালক ড, শাহজাহান কবীর প্রমুখ। অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন বাংলাদেশ বেতার রাজশাহীর রুখসানা আক্তার লাকী ও গম ও ভুট্টা গবেষনা রাজশাহীর সায়িন্টিফিক অফিসার মাহবুব রহমান।

বিকেলে কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক এমপি দিনাজপুর সদর উপজেলার সদরপুরে অবস্থিত দিনাজপুর হর্টিকালচার সেন্টার পরিদর্শন করেন ও এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন। এ সময় সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কর্মকর্তা ও অতিথিবৃন্দ তাঁর সাথে উপস্থিত ছিলেন।

     More News Of This Category