আজ সোমবার,৩রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,১৭ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,বিকাল ৪:৫২

ব্রেকিং নিউজ

তেঁতুলিয়ায় বঙ্গবন্ধুর তর্জনী স্তম্ভ’র উদ্বোধন

News

হাফিজুর রহমান হাবিব, তেঁতুলিয়া (পঞ্চগড়) প্রতিনিধি : ঐতিহাসিক ৭ মার্চের রেসকোর্স ময়দানে জাতির উদ্দেশে বজ্রকণ্ঠে বলিষ্ঠ তর্জনী উচিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতার ডাক’ দেয়াকে স্মরণীয় করে রাখতে তেঁতুলিয়ায় স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর তর্জনী স্তম্ভ’র উদ্বোধন করা হয়েছে। রবিবার (৭ মার্চ) সকাল ১০টায় তেঁতুলিয়া চৌরাস্তায় মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের সামনে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর তর্জনীর ভাস্কর্য উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি হিসেবে উপজেলা চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী মাহমুদুর রহমান ডাবলু। এসময় উপস্থিত ছিলেন নির্বাহী অফিসার সোহাগ চন্দ্র সাহা, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাসুদুল হক, ভাইস চেয়ারম্যান ইউসুফ আলী, মডেল থানার ওসি আবু ছায়েম মিয়া, উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ইয়াছিন আলী মন্ডল, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডার কাজী মাহাবুবুর রহমান, মুক্তিযুদ্ধের যুদ্ধকালীন কমান্ডার আইয়ুব আলী, তেঁতুলিয়া সদর ইউপি চেয়ারম্যান কাজী আনিছুর রহমান, কাজী মতিউর রহমানসহ জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান মুক্তিযোদ্ধারা।

১৯৭১ সালে ৭ মার্চ ঐতিহাসিক রেসকোর্স ময়দানে জাতির উদ্দেশে বজ্রকণ্ঠে বলিষ্ঠ তর্জনীর ইশারায় স্বাধীনতার ডাক দিয়েছিলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। বঙ্গবন্ধু সে ঐতিহাসিক ভাষণে তর্জনী উঁচিয়েই বলেছিলেন, ‘এবারের সংগ্রাম মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম’। সেই তেজদীপ্ত তর্জনী ছিল বাঙালি জাতির প্রতি নির্দেশ ছিল পাকিস্তানি শোষকের বিরুদ্ধে যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ার, রক্ত দিয়ে স্বাধীনতা ছিনিয়ে আনার। সেই উচ্চকিত তর্জনীকে বাঙালির প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে প্রেরণার উৎস ও স্বাধীনতার চেতনা জাগিয়ে রাখতে বঙ্গবন্ধুর তর্জনী স্তম্ভ স্থাপন করে উপজেলা প্রশাসন।

১৯৪৭ সালে পাকিস্তানের জন্ম থেকে ১৯৭১ সালের ১৬ই ডিসেম্বর বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জন পর্যন্ত এ সময় কার ইতিহাস ১০মিনিটের একটি ডিসপ্লের মাধ্যমে তুলে ধরা হয়। ডিসপ্লেটির পরিকল্পনায় ও নির্দেশনা করেন আকরাম হোসেন জাকারিয়া।

এছাড়া নানান কর্মসূচির মধ্য দিয়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপিত হচ্ছে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ । সকাল নয়টায় মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের প্রাঙ্গনে স্থাপিত জাতির পিতার বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পন ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। বিকেলে একযোগে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণ প্রচার, বঙ্গবন্ধুর জীবনী বিষয়ক চলচ্চিত্র প্রদর্শন, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও পুরস্কার বিতরণী ও রাতে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাসমূহে আলোকসজ্জার আয়োজনের কথা জানিয়েছেন উপজেলা প্রশাসন।

     More News Of This Category