আজ মঙ্গলবার,১লা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,১৫ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,সন্ধ্যা ৭:১০

ব্রেকিং নিউজ

দিনাজপুরে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে ॥ গত ২৪ ঘন্টায় আরো একজনের মৃত্যু ॥ নতুন আক্রান্ত ৩০ জন

News

মাহবুবুল হক খান, দিনাজপুর প্রতিনিধি॥ দিনাজপুরে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। গত ২৪ ঘন্টায় আরো একজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১২৯ জনের মৃত্যু হলো। এ ছাড়া নতুন আরো ৩০ জনসহ এ পর্যন্ত ৫৮৫৮ জন আক্রান্ত হয়েছেন। একই সময়ে নতুন আরো ১৯ জনসহ এ পর্যন্ত ৫৪৮৬ সুস্থ হয়েছেন। তবে আক্রান্ত ৫৮৫৮ জনের মধ্যে ৫৪৮৬ জন সুস্থ ও ১২৯ জনের মৃত্যু হওয়ায় বর্তমানে দিনাজপুর জেলায় করোনায় আক্রান্ত রোগির সংখ্যা রয়েছে ২৪৩ জন।
দিনাজপুর সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আব্দুল কুদ্দুছ জানান, বুধবার (২ জুন) দুপুর ১২টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘন্টায় ১১৬টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে ৩০ জনের দেহে করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে এ পর্যন্ত আক্রান্ত রোগির সংখ্যা পৌঁছেছে ৫৮৫৮ জনে। নতুন আক্রান্ত ৩০ জনের মধ্যে সদর উপজেলাতেই ২২ জন। এছাড়া বিরলে একজন, বিরামপুরে দুইজন, বীরগঞ্জে দুইজন, চিরিরবন্দরে একজন ও পার্বতীপুর উপজেলায় দুইজন। একই সময়ে নতুন আরো ১৯ জনসহ এ পর্যন্ত ৫৪৮৬ জন সুস্থ হয়েছেন। আর পারবতীপুর উপজেলায় নতুন একজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দিনাজপুর জেলায় এখন পর্যন্ত ১২৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার আক্রান্তের হার ২৫ দশমিক ৮৬ শতাংশ।
মোট আক্রান্ত ৫৮৫৮ জনের মধ্যে সদর উপজেলায় সবচেয়ে বেশী ৩২৮৬ জন। এছাড়া বিরলে ৩৪১, বিরামপুরে ৩৩৭ জন, বীরগঞ্জে ১৭২ জন, বোচাগঞ্জে ১৫৮ জন, চিরিরবন্দরে ২৪০ জন, ফুলবাড়ীতে ২০০ জন, ঘোড়াঘাটে ৯৩ জন, হাকিমপুরে ১০৭ জন, কাহারোলে ১৭২ জন, খানসামায় ১২৪ জন, নবাবগঞ্জে ১৫৬ ও পার্বতীপুর উপজেলায় ৪৭২ জন।
মোট মৃত ১২৯ জনের মধ্যে সদর উপজেলায় ৬২, বিরলে ৭ জন, বিরামপুরে ৬ জন, বীরগঞ্জে ৬ জন, বোচাগঞ্জে ৫ জন, চিরিরবন্দরে ১১ জন, ফুলবাড়ীতে ৮ জন, হাকিমপুরে একজন, কাহারোলে ৫ জন, খানসামায় ৪ জন, নবাবগঞ্জে ৩ জন ও পার্বতীপুর উপজেলায় ১১ জন। তবে জেলার ১৩টি উপজেলার মধ্যে ঘোড়াঘাট উপজেলায় এখন পর্যন্ত কারো মৃত্যু হয়নি।
সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আব্দুল কুদ্দুছ আরো জানান, গত ২৪ ঘন্টায় ১৮০ টিসহ এ পর্যন্ত ৪৩৬১০টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। আর গত ২৪ ঘন্টায় ১১৬টিসহ এ পর্যন্ত ৪০৭৪৯টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এ ছাড়া গত ২৪ ঘন্টায় ৮০ জনসহ ৩৩৮৫৭ জন কোয়ারেন্টাইন নেয়া হয়েছে এবং ৭৪ জনসহ ৩৩৫৯৯ জন কোয়ারেন্টাইন হতে ছাড় পেয়েছেন। বর্তমানে হোম আইসোলেশনে রয়েছেন ২০৭ জন ও হাসপাতালে ৩৬ জন ভর্তি রয়েছেন বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আব্দুল কুদ্দুছ।

     More News Of This Category